এখন ভিসা ছাড়াই ঘুরতে পারবেন

বাংলাদেশের মানুষ এখন ভিসা ছাড়াই যেতে পারেন ৩৮টি দেশে। অর্থাৎ এই দেশগুলোতে যেতে হলে দেশ থেকে ভিসার জন্য প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হয় না; পাওয়া যায় ভিসামুক্ত সুবিধা। শুধু পাসপোর্ট থাকলেই হয়। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংস্থা দ্য হ্যানলি অ্যান্ড পার্টনার্স বিশ্বের ২০০টি দেশের ওপর গবেষণা জরিপ চালিয়ে একটি মূল্যায়ন সূচক তৈরি করেছে। যেখানে বাংলাদেশের অবস্থান সম্পর্কে এ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। সূচকটিতে বিভিন্ন দেশের পাসপোর্টের মূল্যায়ন তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থানের অবনমন ঘটেছে। আগে ছিল ৯৫তম স্থানে, এখন ৯৭তম নেমে এসেছে। অর্থাৎ বলা যায়, বাংলাদেশি পাসপোর্টের মূল্যায়ন ওজন কমেছে। বাংলাদেশের সঙ্গে একই সূচকে আছে লেবানন, ইরান,…

Read More

পাহাড় চূড়ায় সৌন্দর্যে ভরা এক হিমেল ঠিকানা লাভা

লাভা সম্পর্কে শুনেছিলাম আমার ভ্রমণপিপাসু চিকিৎসক বন্ধু হরিপদ সরকারের মুখে। শিলিগুড়ি থেকে লাভা যাওয়ার পথটি নাকি অসাধারণ। তাই এবারের ভারত ভ্রমণে দার্জিলিংয়ের বাইরে লাভাকে অন্যতম গন্তব্য হিসেবে ঠিক করেই রেখেছিলাম। আর লাভা ভ্রমণের সেই সুযোগ এসে গেল ১৬ অক্টোবর সকালে। আমার মেঝদিদি, জামাইবাবু, ভাগ্নে, আমি আর ববি-এই পাঁচজন মিলে শিববাড়ী থেকে একটা মাইক্রোবাস ভাড়া নিয়ে সোজা গেলাম শিলিগুড়ি মোড়। সেখানে সাড়ে চার হাজার রুপিতে একটা টাটা সুমো জিপ ভাড়া করে রওনা হলাম লাভার উদ্দেশে। শিলিগুড়ি থেকে সেবক ব্রিজ পেরিয়ে ডামডিম-গরুবাথান হয়ে আমরা লাভার পথে যাত্রা শুরু করি। শিলিগুড়ি থেকে লাভার…

Read More

মৈনট ঘাট: পদ্মা পাড়ে ছোট কক্সবাজার

ঢাকার খুব কাছেই পদ্মা নদীর উত্তাল ঢেউ দেখতে আর নৌকা ভ্রমনে যেতে পারেন নবাবগঞ্জের দোহার উপজেলার মৈনট ঘাটে। এখানে আসলে মুগ্ধ হয়ে তাকিয়ে থাকবেন পদ্মার অপরূপ উত্তাল জলরাশি দেখে। বিস্তীর্ণ জলরাশি আর নদীর বুকে জেলেদের সারি সারি নৌকা দেখলে মনে হবে আপনি কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে আছেন। এ জায়গা এখনো সবার কাছে পরিচিত না হওয়ায় অনেক ভ্রমনপিপাসু মানুষই বঞ্চিত হচ্ছে এই সৌন্দর্য উপভোগ করা থেকে। খুব ভোরবেলা আসলে পাবেন সারারাত জেলেদের ধরা ইলিশসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছের বাজার। চাইলে এখান থেকে সস্তায় মাছ কিনতেও পারবেন। মৈনট ঘাটের সৌন্দর্য উপভোগ করার শ্রেষ্ঠ সময়…

Read More

সাজেক ভ্রমণের টুকিটাকি

সাজেকঃ পাহাড় দেখার শ্রেষ্ঠ সময় বর্ষাকাল। কম-বেশি বৃষ্টি হচ্ছে পাহাড়ে। আর এমন সময়ে সবুজ পাহাড়ে ডানা মেলেছে মেঘ। কচকচে সবুজের বেষ্টনিতে কেবলি বৃষ্টির বড় বড় ফোটা! ভূপৃষ্ঠ থেকে থেকে প্রায় ১ হাজার ৭শ’ ফুট উপরে হওয়ায় এই সময়ও সারাক্ষণ সাজেক ভ্যালিতে চলে মেঘের নাচন। বৃষ্টি শেষ হওয়ার পর রূপ ফুটে বের হয় তার। সাদা মেঘের কুণ্ডলী বিস্তৃত গভীর উপত্যকা থেকে বেয়ে ওঠে। সাদা মেঘে ঢেকে যায় পুরোটা ভ্যালি, এ যেন মেঘের উপত্যকা। ভোরে ঘুম ভাঙার পর পর্দা সরাতেই স্বাগত জানালো মিষ্টি রোদের আলো। চায়ে চুমুক দিতেই একরাশ শুভ্রমেঘ এসে আলতো…

Read More

কলকাতায় এলে যা না খেলেই নয়

কলকাতায় এলেন আর খাবারের স্বাদ নিলেন না তা কি করে হয়? এই একটা শহরে এতো এতো পদের খাবার পাওয়া যায় যে আপনি গোটা ১টা বা ২টা দিন ধরে খেয়েও শেষ করতে পারবেন না। তবুও একটা শহরের সব কিছুতো আর জিভে জল আনে না, কিছু কিছু সিগনেচার আইটেম থাকে যা না খেলেই নয়। এখানে তেমন কিছু খাবার ও লোকেশন ও ছবি দেয়া হলো যা একবার হলেও চেখে দেখবেন। 1. Roshogolla Place: K.C. Das & Bheem Nag 2. Sondesh Place: Nakur Nandy 3. Chanachur Place: Ujjala 4. Kosha Mangsho (mutton curry) Place: Golbari…

Read More

কলকাতায় কম খরচে শপিং করা যায় কোথায়?

নিউ মার্কেট: ওল্ড কম্লেক্সের চরিত্র এক রকম, নতুন কম্প্লেক্সের আরেক, আবার গোটা এসপ্লানেডের ফুটপাথ জুড়ে সাজিয়ে বসা নানা পসরার চরিত্র আরেক রকম। কোথায়ও আপনি হতাশ হবেন না, পকেটও থাকবে বেশ! বড় বাজার: রোজকার পরার শাড়ি, কুর্তি থেকে শুরু করে ঝলমলে পোশাক যে কোনো রকম পেয়ে যাবেন বড় বাজারের ঢালা সম্ভারে। গড়িয়াহাট: দোকান হোক বা ফুটপাথ, মোড়ের মাথার মশলা চা বা বেদুইনের রোল, কিনুন বা শুধুই ফুটপাথ ধরে হেঁটে বেড়ান, গড়িয়াহাটের ব্যপারই আলাদা। কি কে মার্কেট: শেক্সপিয়ার সরণীর ওপর এ সি এই শপিং মল কলকাতার ফ্যাশনাদের জন্য সেরা জায়গা।ব্যাঙ্কক, হংকং-এর লেটেস্ট ফ্যাশন পোশাক সব পেয়ে…

Read More

কলকাতা মেট্রো রেলের রুট ও বিস্তারিত

দম দম > বেল গাছি > শ্যাম বাজার > শোভা বাজার > গিরিশ পার্ক > M.G রোড > সেন্ট্রাল > চাঁদনী চক > স্প্লানেড > পার্ক স্ট্রীট > মায়দান > রবিন্দ্র সনদ > নেতাজী ভবন > জতিন দাস পার্ক > কালীঘাট > রবিন্দ্র সরোবর > টলিগঞ্জ > নেতাজি >মাস্টার দা সুর্যসেন > গীতাঞ্জলী > কবি নজরুল > শহীদ ক্ষুদিরাম > কবি সুভাস ভাড়া ৫, ১০ , ১৫ , ২০ । আপনি যদি দমদম থেকে পার্ক স্ট্রীট আসেন তবে ভাড়া ১০ রুপি আবার পার্ক স্ট্রীট থেকে চাঁদনী চক যান তবে ভাড়া…

Read More

কলকাতা ভ্রমণে দর্শণীয় স্থানগুলো

ভিক্টরিয়া মেমোরিয়াল: প্রথমেই যেটির কথা বলব সেটি হচ্ছে ভিক্টরিয়া মেমোরিয়াল। নান্দনিক এ ভবনটি এবং তৎসংলগ্ন অসাধারণ পার্কটি পর্যটকদের প্রধান আকর্ষণ। মুঘল ও ব্রিটিশ নির্মাণ কৌশলের মিশেলে তৈরি এ স্থাপনাটি তৈরি করেন লর্ড কার্জন ১৯২১ সালে। মূলত বিখ্যাত ব্রিটিশ রানী ভিক্টরিয়ার মৃত্যুর পর তার স্মরণে এটি নির্মাণ করা হয়। শ্বেত পাথরে নির্মিত মূল ভবনটির ঠিক সামনেই রয়েছে সিংহাসনাধীন মহারানী ভিকটোরিয়া এক বিশালাকার মূর্তি। ভিক্টরিয়া মেমোরিয়াল, কলকাতা, ইন্ডিয়া এছাড়া রয়েছে নাতিদীর্ঘ লেক বিশিষ্ট পার্ক। নান্দনিক ব্রিজ আর বসার জায়গা। মূল ভবনটি বর্তমানে জাদুঘরে রূপান্তর করা হয়েছে যেখানে স্থান পেয়েছে বিভিন্ন এন্টিক শিল্পকর্ম…

Read More

মালয়েশিয়া ভ্রমনের অভিজ্ঞতা – শেষপর্ব

কুয়ালালামপুরঃ মালিন্দো এয়ারে চড়ে ঠিক ১২টায় এসে নামলাম কেলিয়া-২ এ। ব্যাগ বুঝে নিয়ে সোজা চলে গেলাম কেলিয়া এক্সপ্রেসের কাউন্টারে ৩৫ করে ৭০ রিঙ্গিতে ২টা টিকিট কাটলাম কেএল সেন্ট্রাল পর্যন্ত। খুব আরামদায়ক ভাবেই পৌছে গেলাম কেএল সেন্ট্রালে। পথে ফ্রি ওয়াইফাই তে ইন্টারনেট চালাতে চালাতে আর চারপাশের সুন্দর সব স্থাপনা আর উড়াল সেতুগুলো দেখতে দেখতে পৌঁছে গেলাম কেএল সেন্ট্রালে। এবার এখান থেকে যেতে হবে আমাদের হোটেলে। আমি লংকাউই থাকতেই কয়েকটি হোটেলে কথা বলে নিয়েছিলাম আর সেখান থেকেই একটা হোটেল ঠিক করে নিলাম। একটা ট্যাক্সি নিয়ে নিলাম এক্সপ্রেস ষ্টেশন থেকে। কুয়ালালামপুর ও এর…

Read More

মালয়েশিয়া ভ্রমনের অভিজ্ঞতা – ১

অনেক দিনের ইচ্ছে ছিল মালয়েশিয়া ঘুরতে যাবো। ইন্টারনেট আর ট্রিপ এ্যাডভাইজরের কল্যাণে মালয়েশিয়া যাবার আগেই বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করলাম। মূলত কোথায় কি করতে হবে, কি কি দেখতে হবে, কোথায় থাকবো, কি কি খাবো ইত্যাদি ইত্যাদি। আমি বরাবরই সব কিছু সময়ের আগে আগেই গুছিয়ে রাখতে ভালোবাসি। তাই মালয়েশিয়া যাবার প্রায় ১মাস আগে ভিসার জন্য আবেদন করে রাখলাম, সাথে বিমানের টিকিটও বুক করে রাখলাম। ভিসা খুব সহজেই পেয়ে যাবেন যদি স্বামী স্ত্রী বা পরিবারের সবাই মিলে আবেদন করেন। একা একা করলে হয়ত পেতে একটু কষ্ট হতে পারে। সাধারনত ৭ দিন লাগে ভিসা…

Read More